Categories
আন্তর্জাতিক

কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড

বিতর্ক আর বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত, একই মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ। বিজেপি সমর্থক কঙ্গনা পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলের পর মমতা ব্যানার্জিকে নিয়ে টুইট করেন। পরপর তিনটি টুইটে মমতাকে আক্রমণ করেন কঙ্গনা।

প্রথম টুইটে কঙ্গনা লেখেন, বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারা মমতা ব্যানার্জির সবচেয়ে বড় শক্তি। যা প্রবণতা দেখছি তাতে বাংলায় আর হিন্দুরা সংখ্যাগরিষ্ঠ নেই এবং তথ্য অনুযায়ী গোটা ভারতের অন্য এলাকার তুলনায় বাংলার মুসলিমরা সবচেয়ে গরিব আর বঞ্চিত। ভালো আরেকটা কাশ্মীর তৈরি হচ্ছে।

অভিনেত্রীর এ মন্তব্য মেনে নিতে পারেনি নেটিজেনরা। তার বিরুদ্ধে পাল্টা সরব হন অনেকে। এর পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (৪ মে) সাসপেন্ড করা হয়েছে কঙ্গনা রানাওয়াতের টুইটার অ্যাকাউন্ট। কারণ হিসেবে টুইটার কর্তৃপক্ষ উল্লেখ করেছে, টুইটার ব্যবহারের নীতিমালা মানছেন না কঙ্গনা। তাই তার অ্যাকাউন্ডটি সাসপেন্ড করা হয়েছে। কঙ্গনার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন কঙ্গনা বিরোধী অনেকে।

এদিকে উস্কানিমূলক মন্তব্য এবং বাঙালি জাতিকে অপমান করার অভিযোগে কঙ্গনার নামে কলকাতায় মামলা করেছেন হাইকোর্টের আইনজীবী সুমিত চৌধুরী। ই-মেইলে কঙ্গনার নামে মামলা দায়ের করেছেন বলে জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

সুমিত চৌধুরীর অভিযোগ করেন, কঙ্গনা বাংলার আইনশৃঙ্খলা নষ্ট করতে চাইছেন। ২ মে তিনি যে তিনটি টুইট করেছেন তা পশ্চিমবঙ্গ ও পশ্চিমবঙ্গবাসীর অপমান। বিজেপির পক্ষ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অশান্তি ছড়াতে চাইছেন কঙ্গনা।

Categories
আন্তর্জাতিক

বিল গেটস ও মেলিন্ডার ২৭ বছরের সংসারে বিচ্ছেদ

দীর্ঘ ২৭ বছরের দাম্পত্যজীবনের ইতি টানার ঘোষণা দিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ধনকুবের মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও মেলিন্ডা।সোমবার (৩ মে) রাতে এক যৌথ টুইটার বার্তায় তারা এ বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ খবর দিয়েছে।

ওই বার্তায় বিল-মেলিন্ডা বলেন, আমরা যুগল হিসেবে আর পথ চলতে পারবো বলে আমাদের মনে হয় না। নিজেদের সম্পর্কের ওপর অনেক নিরীক্ষা ও চিন্তাভাবনার পর আমরা আমাদের সংসারের ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

১৯৮০-এর দশকের শেষ দিকে মেলিন্ডা বিল গেটসের মাইক্রোসফট কোম্পানিতে যোগ দিলে দুজনের পরিচয় হয়। পরে তারা প্রণয়ে জড়ান, সেই প্রণয় ১৯৯৪ সালে গড়ায় পরিণয়ে।

তাদের এ ২৭ বছরের দীর্ঘ সংসারে ঘর আলো করে আসে তিন সন্তান। এই যুগল দাতব্য সংস্থা ‘বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন’র যৌথ পরিচালক। সংস্থাটি বিশ্বজুড়ে সংক্রামক রোগের বিরুদ্ধে লড়াই এবং শিশুদের টিকার আওতায় আনতে শত শত কোটি ডলার ব্যয় করে আসছে।

আরেক ধনকুবের ওয়ারেন বাফেটের সঙ্গে মিলে এই দম্পতি ‘গিভিং প্লেজ’ নামে একটি উদ্যোগ শুরু করেন, যেটির লক্ষ্য বিলিয়নিয়ারদের সম্পদের একটি বড় অংশ দাতব্য কাজে লাগানো। প্রভাবশালী সাময়িকী ফোর্বসের বিচারে, বিল গেটস এখন বিশ্বের চতুর্থতম সম্পদশালী ব্যক্তি।

Categories
আন্তর্জাতিক

যারা টিকা নিয়েছেন তাদের মাস্ক পরার প্রয়োজন নেই: বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রে দুই ডোজ করোনার টিকা যারা নিয়েছেন এখন থেকে সীমিত পরিসরে জনসমক্ষে তাদের মাস্ক পরতে হবে না। মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে দেয়া ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ ঘোষণা দেন। এর আগে করোনা মহামারিতে নতুন নির্দেশনা জারি করে দেশটির রো’গ সংক্র’মণ কেন্দ্র।

করোনায় এ নতুন নির্দেশনা বাইডেনের ১০০ দিনের কর্মকাণ্ডের সাফল্য হিসেবেই দেখছেন প্রবা’সী বাংলা’দেশিসহ মার্কিন জনগণ। করোনা মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ। তবে ৩৩ কোটির দেশটিতে ইতোমধ্যে বিশ কোটিরও বেশি মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে। টিকা নিতে এখন কোনো পূর্বনির্ধারিত অ্যাপয়েনমেন্টও লাগছে না।

এবার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঘোষণা দিলেন, টিকা যারা নি’য়েছেন বাড়ির ভেতরে বা বা’ইরে তাদের মাস্ক পরার প্রয়োজন নেই। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, আপনি যদি টিকা দিয়ে থাকেন তবে আপনি বাইরে এবং বাড়ির বাইরেও আরও সুরক্ষিতভাবে আরও অনেক কিছু করতে পারবেন।তবে প্রেসিডেন্ট এটাও বলেছেন, বড় ধরনের কোনো জনসমাগমের ক্ষেত্রে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক।

জো বাইডেন আরো বলেন, আমি একেবারে পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, আপনি যদি ভি’ড়ের মধ্যে থাকেন, স্টেডিয়ামের মতো বা কোনও সম্মেলনে বা কনসার্টে থাকেন তবে আপনার বাইরে থাকা সত্ত্বেও একটি মুখোশ (মাস্ক) পরা প্রয়োজন।

এদিকে, এ সপ্তাহেই জো বাইডেনের ক্ষমতাগ্রহণের ১০০ দিন পূর্ণ হতে যাচ্ছে। বুধবার কংগ্রেসে প্রথমবার যৌথ ভাষণ দেবেন তিনি। এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে তার কর্মকাণ্ডের মূল্যায়ন। প্রবাসী বাংলাদেশিরা বাইডেনের ১০০ দিনকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন।

দেশটির অর্থনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বিগত ৭৫ বছরের মধ্যে তুলনামূলক বিচারে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের প্রথম ১০০ দিনে আমেরিকার স্টক মার্কেট সবচেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে।

দেশটির অনেকে বলছেন, ১০০ দিনে বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রকে কিছুটা হলেও বদলে দিয়েছেন। কারও কারও মতে, বাইডেনের সাফল্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্টকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে। এখন বাইডেন দেশকে কত দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন, তা সময়ই বলবে।

Categories
আন্তর্জাতিক করোনাভাইরাস

এবার মোদির পরিবারে করোনার হানা

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চাচী নর্মদাবেন। মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) গুজরাটের আহমেদাবাদের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। ১০ দিন আগে নর্মদাবেনকে আহমেদাবাদের সিভিল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

নরেন্দ্র মোদির ছোট ভাই প্রহ্নাদ মোদি জানান, আমাদের কাকিমা নর্মদাবেন মোদিকে ১০ দিন আগে সিভিল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। আজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ভারতে করোনা ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। দেশটিতে শুধু সোমবার সকাল থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সোয়া তিন লাখেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মারা গেছেন আরও ২ হাজার ৮১২ জন।

Categories
আন্তর্জাতিক

১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আটক থাকবেন ৭৫ বছর বয়সী সু চি

মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চির বি’রু’দ্ধে অনুষ্ঠানিক অ’ভিযো’গ দা’য়ের করা হয়েছে। সেনাঅ’ভ্যু’ত্থানে আ’টক হওয়া এই গণতন্ত্রকামী নে’ত্রীকে দুই সপ্তাহের রিমা’ন্ড দেওয়া হয়েছে। খবর সিএনএন ও সৌদি গেজেট এর। সুচির দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) বলছে, ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আ’ট’ক থাকবেন ৭৫ বছর বয়সী সু চি। এর আগে, আমদানি-রপ্তানি আইনের ল’ঙ্ঘ’নে’র অ’ভিযো’গ এনে সু চিকে গ্রে’ফতা’র দেখানো হয়। দেশটির মিলিটারি টিভি নিশ্চিত করে যে, দেশটিতে এক বছরের জরুরি অবস্থা জা’রি করা হয়েছে।

 

গত বছর নভেম্বরের নির্বাচনে অং সান সুচির এনএলডি সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে। কিন্তু সেনাবাহিনী নির্বাচনে জা’লিয়া’তির অ’ভিযো’গ তোলে। পরে সোমবার ক্ষমতা নিয়ে নেন কমান্ডার-ইন-চিফ মিন অং লাইং।

 

এদিকে, মিয়ানমারে সামরিক অ’ভ্যুত্থা’নের পর দেশটির কয়েকশ সংসদ সদস্যকে রাজধানী নাই পি তাওয়ের খোলা আকাশের নিচে আ’ট’কে রাখা হয়েছে। ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রসির নেত্রী অং সান সু চিসহ দেশের প্রেসিডেন্ট ও বহু সরকারি কর্মকর্তাকে আ’টকে’র একদিন পর সংসদ সদস্যদের আট’ক করে খোলা আকাশের নিচে রাখা হয়।

 

মঙ্গলবার প্রকাশিত গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, অন্তত আরও ৪০০ সংসদ সদস্যকে তাদের সরকারি বাসভবন কমপ্লেক্সে আ’টকে রাখা হয়েছে এবং তাদের বাইরে যাওয়া আসার অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। কয়েকজন সংসদ সদস্য জানিয়েছেন, বাসভবন কমপ্লেক্সের ভেতরে পুলিশ মো’তায়েন রয়েছে এবং বাইরের সেনা সদস্যরা ট’হল দিচ্ছে।

Categories
আন্তর্জাতিক

রামমন্দিরের জন্য দান করে মুসলিম যুবতী বললেন ‘রামই আমাদের পূর্বপুরুষ’

অয্যোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের জন্য সবাই খুশি খুশি নিজের সাধ্যমত দান করছে। ভা’রতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সংসদীয় এলাকা কাশী থেকেও মানুষ রাম মন্দির নির্মাণের জন্য দান করছে। মু’সলিম যুবতী তথা আইনের ছা’ত্রী ইকরা আনোয়ার খান অয্যোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের জন্য ১১ হাজার টাকা দান করেছে।

 

ওই যুবতী নিজের হাতে ‘শ্রী রাম’ লেখা একটি ট্যাটুও করেছে। ইকরা আনোয়ার খান ১১ হাজার টাকার চেক অখিল ভা’রতীয় সন্ত সমিতির হাতে তুলে দিয়েছে। ইকরা খান জানায়, শ্রী রাম তাদের পূর্ব পুরুষ। আর সেই কারণে অয্যোধ্যায় রাম মন্দির বানানোর জন্য সে সামান্য কিছু সহায়তা রাশি দিয়েছে। ইকরা বলে, রাজনৈতিক নেতারা ধ’র্ম ভাগ করার নামে রাজনীতি করে।

 

ইকরা বলে, ধ’র্ম আলাদা-আলাদা হয় না, এটা বলেই আমি তাদের মুখে কষিয়ে চড় মা’রতে চাই। ধ’র্ম একটাই আর সেটা হল মানবতা। আমি মানুষ হিসেবে রাম মন্দির নির্মাণের অংশ হচ্ছি, আর আমি এটা স্বইচ্ছে এবং খুশির সাথেই করছি। ইকরা জানায়, হিন্দু-মু’সলিম দুই ধ’র্মের প্রতিই আমা’র বিশ্বা’স আছে। ইকরা বলে, আমি মন্দিরেও যাই আর বাড়িতে নামাজও পড়ি।

 

অখিল ভা’রতীয় সন্ত সমিতির মহামন্ত্রী স্বামী জিতেন্দ্রানন্দ বলেন, ইকরা আনোয়ার খান প্রথম মু’সলিম মহিলা হিসেবে রাম মন্দির নির্মাণের জন্য ১১ হাজার টাকা দান করেছে। সমাজে ধ’র্ম আর জাতপাত শুধুমাত্র রাজনীতির জন্যি, যারা আস্থার প্রতি বিশ্বা’স রাখে, তাদের জন্য না। অয্যোধ্যায় রাম মন্দিরের জন্য ৫ আগস্ট হওয়া ভূমি পুজো’র সময় ইকরা নিজের হাতে শ্রী রামের নাম লিখিয়েছিল।

 

চন্দোলি জে’লার পিডিডিইউ নগরের হনুমাপুরের বাসিন্দা ইকরা আনোয়ার বলে, শ্রী রামের থেকে বড় কোনও ভগবান নেই। রাম মন্দির নির্মাণের জন্য বহু বছর আম’রা অ’পেক্ষা করেছি, ভূমি পুজো’র সময় আম’রা সেই অবিস্ম’রণীয় মুহূর্তের সাক্ষী হয়েছি। আর সেই ক্ষণকে স্ম’রণীয় করতেই আমি হাতে শ্রী রামের নামে ট্যাটু বানিয়েছি। সূত্র: দ্য ওয়ার।

Categories
আন্তর্জাতিক

দুই সন্তান নিয়ে বিমানে ওঠার পর যাত্রীর শেষ স্ট্যাটাস ‘আমরা এখন বাড়ি যাচ্ছি’

ইন্দোনেশিয়ায় সাগরে বি’ধ্ব’স্ত বিমানের ব্ল্যাক বক্সের অবস্থান শনা’ক্ত হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ব্ল্যা’ক বক্সের ওই এলাকাতেই বিমানটির স’ন্ধান পাওয়া যাবে। এখনো বি’ধ্ব’স্ত বিমানটির আরোহীদের খুঁজতে অ’ভিযা’ন চালিয়ে যাচ্ছেন উ’দ্ধা’রকর্মীরা। ৬২ আরোহীকে খুঁজতে এখন কাজ করছেন ২ হাজার ৬০০ কর্মী। তবে কোনো আরোহীর জী’বিত থাকার সম্ভাবনা একেবারেই ক্ষী’ণ।

জাভা সাগরে ইন্দোনেশিয়ার বি’ধ্ব’স্ত উড়োজাহাজ বোয়িং ৭৩৭-৫০০ এর ব্ল্যাক বক্সের স’ন্ধা’ন পাওয়া গেছে। দ্রুত সেটি পু’নরু’দ্ধার করার কথা জানিয়েছেন দেশটির সামরিক প্রধান জাহজান্তো। অপরদিকে বি’ধ্ব’স্ত বিমানের যাত্রীদের জন্য পরিবারের আ’হাজা’রি থামছেই না। সম্প্রতি রাইথ উইনদানিয়া নামে এক যাত্রীর ইন্সটাগ্রামের পোস্ট ভা’ইরা’ল হয়েছে।

 

দুই সন্তান নিয়ে বিমানে ওঠার পর ইন্সটাগ্রামে তার দুই সন্তানকে নিয়ে হা’স্যোজ্জ’ল পোস্ট দেন। ক্যাপশনে তিনি লেখেন ‘বাই বাই ফ্যামিলি, আমরা এখন বাড়ি যাচ্ছি।’ ছবি পোস্ট করার কয়েক মিনিট পরই সমুদ্রে বি’ধ্ব’স্ত হয় তাদের বহনকা’রী বিমানটি।

 

রাইথের ভাই ইরফানসিয়াহ রিয়্যান্তো তার বোনের পরিবারের একটি ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে লিখেছেন: ‘আমাদের জন্য প্রার্থনা করুন। এদিকে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, বিমানের স’ন্ধা’ন না মিললেও সাগরের এখানে-সেখানে ভেসে উঠছে দে’হাবশে’ষ, জামাকাপড় ও লাইফ জ্যাকেটসহ নানা জিনিসপত্র। হেলিকপ্টার ও জ’লযান নিয়ে উ’দ্ধার অ’ভিযা’ন চালাচ্ছেন কর্মীরা। অনেক মৃ’তদে’হের খ’ণ্ডিত অংশ মিলেছে।

Categories
আন্তর্জাতিক

ভারতে মেডিক্যালে চান্স পাওয়ার পরও ভর্তি হতে পারছে না মুসলিম শিক্ষার্থীরা

নয়াদিল্লির জামিয়া নগরের একটি সরকারি বিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করা ২৩ মুসলিম ছাত্রী এবছর সর্বভারতীয় মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা এনইইটিতে উত্তীর্ণ হলেও তাদের ২২ জনই কোনো মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির আবেদন করতে পারছেন না।

 

মুসলিম মিররকে ওই ছাত্রীরা জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো র‌্যাংকিংয়ে সীমা নির্ধারণ করে দেয়ার কারণে কোনো সরকারি মেডিক্যাল কলেজে তারা ভর্তি হতে পারছেন না। অবশ্য বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজে তাদের ভর্তির সুযোগ থাকলেও ওই প্রতিষ্ঠানগুলোতে অধ্যয়নে বিপু’ল খরচের কারণে তারা ভর্তি হতে পারবেন না।

 

২২ ছাত্রীর একজন মাদিহা বলেন, ‘আমরা মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্য। তাদের ফি আমরা বহ’ন করতে পারবো না।’ নয়াদিল্লির ওখলার নূরনগরের সরকারি সর্বোদয়া কন্যা বিদ্যালয় থেকে এই শিক্ষার্থীরা অধ্যয়ন করেন। এবছর দিল্লির সরকারি বিদ্যালয় থেকে সর্বভারতীয় মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা এনইইটিতে উত্তী’র্ণ ৫৬৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে তারা ছিলেন।

 

অক্টোবরে দিল্লির উপ মুখ্যমন্ত্রী মনীষ সিসদিয়া এনইইটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের প্রশংসা করেন। তিনি ওইসময় নাম উল্লেখ করে নূরনগরের বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ব্যতিক্রমী ফলাফলের প্রশংসা করেন। উত্তী’র্ণ ২৩ শিক্ষার্থীর একজন তাসনিম পারভীন দক্ষিণ দিল্লির সরকারি মীরাবাই পলিটেকনিকে বি. ফার্মায় ভর্তিতে সক্ষ’ম হয়েছেন। কিন্তু বাকি ছাত্রীরা এ বছর ভর্তিতে ব্য’র্থ হন।

 

ওই ছাত্রীদের যথাযথ কোচিং ও পরের পরীক্ষায় আরো ভালো ফলাফলে সহায়তার জন্য এগিয়ে এসেছে জামিয়া কোঅপারেটিভ ব্যাংক। শীর্ষ ১০ ছাত্রীকে বেছে নিয়ে প্রতিজনকে ৪০ হাজার রুপি সহায়তা দিয়ে ভারতের শীর্ষ মেডিক্যাল কোচিং আকাশ ইন্সটিটিউটে ভর্তিতে সাহায্য করেছে ব্যাংকটি। আদিবা আলী, সাইজা আলী, বুশরা মিদহাত ও আরিবা তাদের মধ্যে অন্যতম।

 

অন্যদিকে, বিদ্যালয়টির সাবেক অধ্যক্ষ ড. শাবানা নাদিম আরো দুই ছাত্রীকে আকাশে কোচিং করতে সহায়তা করেছেন।মুসলিম মিররের সাথে কথা বলতে গিয়ে জামিয়া কোঅপারেটিভ ব্যাংক ও ড. নাদিমের প্রশংসা করেন বিদ্যালয়ের উপ-অধ্যক্ষ মুদাসসির জাহান।বাকি ছাত্রীরাও আগামী এনইইটি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তারা অন্যান্য কোচিং সেন্টারগুলোতে ভর্তি হয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান বিদ্যালয়ের শিক্ষক সাদাফ রইস। সূত্র : মুসলিম মিরর

Categories
আন্তর্জাতিক

তুরস্কের স্বর্ণের খনি আল্লাহর বড় নেয়ামত

বিশালাকারের এক সোনার খনির সন্ধান পেয়েছে তুরস্ক। খনিটিতে প্রায় ৩.৫ মিলিয়ন আউন্স (৯৯ টন) সোনা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে, যার মূল্য হবে প্রায় ছয় বিলিয়ন মার্কিন ডলার (৫০ হাজার ৮৮০ কোটি টাকা)। মঙ্গলবার এ খবর দিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি।

 

মধ্যপশ্চিম তুরস্কের সগুত শহরের কাছে খনিটির সন্ধান পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন, দি অ্যাগ্রিকালচারাল ক্রেডিট কোঅপারেশনস অব টার্কি এবং গুবরেতাশ ফার্টিলাইজার প্রডাকশন ফার্মের প্রধান ফখরুদ্দিন পয়রাজ। তিনি আনাদোলুকে বলেন, ‘আমরা প্রায় ৬ বিলিয়ন ডলার মূল্যের সম্পদ পেয়েছি।’ তিনি আরো বলেন, ‘দুই বছরের মধ্যে আমরা প্রথম স্বর্ণ উত্তোলন করবো এবং এর মূল্য তুর্কি অর্থনীতিতে যোগ করবো।’

 

এদিকে নতুন স্বর্ণখনি পাওয়ার খবরের পর তুরস্কের শেয়ারবাজার বোরসা ইস্তাম্বুলে গুবরেতাশ কোম্পানির শেয়ারমূল্য ১০ শতাংশের মতো বেড়ে গেছে। পয়রাজ জানান, ২০১৯ সালে আদালতের রায়ের মাধ্যমে অন্য একটি কোম্পানি থেকে গুবরেতাশ ফার্টিলাইজার এই জমির মালিকানা পায়। তারা নিজেরাই এই খনি থেকে স্বর্ণ উত্তোলনের ব্যবস্থা করবে।

 

তুরস্কের জ্বালানি ও প্রাকৃতিক সম্পদমন্ত্রী ফাতিহ দোনমেজ গত সেপ্টেম্বরে জানান, তুরস্ক গত বছর ৩৮ টনের মতো স্বর্ণ উৎপাদনের রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। ওই সময় তিনি বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে বার্ষিক স্বর্ণ উৎপাদন এক শ’ টনে নিয়ে যাওয়া।’

Categories
আন্তর্জাতিক

ভক্তদের কাছে বিশেষভাবে দোয়ার অনুরোধ জানালেন মাওলানা তারেক জামিল

জনপ্রিয় ইসলামিক স্কলার ও দ্বীন প্রচারক মাওলানা তারেক জামিল ক’রো’নায় আ’ক্রা’ন্ত হয়ে এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

সোমবার (১৪ ডিসেম্ব) তারেক জামিলের ব্যক্তিগত টুইটার একাউন্টে প্রকাশিত টুইটের বরাত দিয়ে তার ক’রো’নায় আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার খবর প্রকাশ করে পাকিস্তানের শীর্ষ দৈনিক দা ডন।

 

টুইট বার্তায় তারেক জামিল উল্লেখ করেন, বিগত কয়েকদিন যাবত আমার অবস্থা ছিল বেগতিক। করোনা টেস্ট করালে তার ফলাফল আসে প’জি’টিভ এবং পরবর্তীতে ডাক্তারদের পরামর্শক্রমে আমি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে যায়। আমার সকল ভ’ক্তদের কাছে আমার জন্য বিশেষ ভাবে দোয়ার অনুরোধ থাকলো।

 

উল্লেখ্য, পাকিস্তান সহ বিশ্বজুড়ে খ্যাতি পাওয়া মাওলানা তারেক জামিল একজন জনপ্রিয় দ্বীন প্রচারক। তার দাওয়াতের প্রভাবে বহু বেদ্বীন ও গাফেল ব্যক্তি ইসলামের সুশীতল ছায়ায় নিজেদের ফিরে পেয়েছে।