Categories
জাতীয়

ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের ডাক, বাংলাদেশের বিক্ষোভ বিশ্ব মিডিয়ায়

বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদকে (সা.) অব’মান’নার প্রতিবাদে ফ্রান্সের পণ্য বয়ক’টের ডাক দিয়েছে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মুসলিম প্রধান দেশ বাংলাদেশ। মহানবীকে নিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রোর বিতর্কিত মন্তব্যের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্যারিসের বি’রু’দ্ধে সরব হয় দেশটির নাগরিকরা।

 

মঙ্গলবার তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আনাদলুতে শিরোনাম করা হয়, ফ্রান্স ব’য়ক’টের আন্দোলন বাংলাদেশে গতি পেয়েছে। ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যম ফ্রান্স২৪ শিরোনাম করেছে, বিশ্বনবীর ব্যা’ঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে ১০ হাজারের বেশি বি’ক্ষো’ভকারী ফ্রান্সের পণ্য ব’য়’ক’টের আহ্বান জানিয়েছে।

 

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা শিরোনাম করেছে, হাজার হাজার বি’ক্ষো’ভকারী বাংলাদেশে ফ্রান্সের পণ্য বয়ক’টের আহ্বান জানিয়েছে। ২০১৫ সালে প্রথম ফ্রান্সের শার্লি হেবদোতে ব্যা’ঙ্গচি’ত্র প্রকাশ করা হয়। পরে এটি আবার আলোচনায় আসে ফরাসী শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটির হাত ধরে। ওই শিক্ষক ক্লাসরুমে নবীজির ব্যা’ঙ্গচি’ত্র প্রদর্শন করেন। এরপরই গত সপ্তাহে এক মুসলিম তরুণ ওই শিক্ষককে খু-ন করেন। যদিও পুলিশের গু-লিতে ওই তরুণ নি’হত হয়েছিলেন।

 

গত বুধবার খু-ন হওয়া ফরাসি শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটিকে সম্মান জানাতে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ম্যাক্রোঁ বলেন, ইসলাম ধর্ম ও বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদকে (সা.) নিয়ে ব্যা’ঙ্গচি’ত্র প্রদর্শন বন্ধ করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন। এরপরই ফ্রান্সের মুসলিমরা ম্যাঁক্রোর বি’রু’দ্ধে অভি’যোগ তোলেন, তাদের ধর্মকে দ’ম’ন করা ও ইসলামফোবিয়াকে বৈধতা দিতে চেষ্টা করছেন তিনি।

 

ম্যাঁক্রোর এমন বিত’র্কিত মন্তব্যের পরই তুরস্ক এবং পাকিস্তানসহ বেশ কয়েকটি আরব দেশ নি’ন্দা জানিয়েছে। এদিকে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেছেন, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের মা’নসিক স্বাস্থ্যের চিকিৎসা দরকার। তুর্কির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আনাদলুর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার বাংলাদেশে ১০ হাজারের বেশি বি’ক্ষো’ভকারী ঢাকায় ফ্রান্সের দূতাবাসের দিকে সংরক্ষিত রেজিস্টারে কড়া মন্তব্য জানাতে যাত্রা শুরু করে। এ সময় সবাইকে ফ্রান্সের পণ্য ব’য়ক’টের আহ্বান জানানো হয়।

 

ফ্রান্সের সুগন্ধি ও কসমেটিকসের বড় একটি বাজার বাংলাদেশ। এর আগে বক্তারা রোববার ঢাকায় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে তার বক্তব্যের জন্য ক্ষ’মা চাইতে বলা হয়। আনাদলু এজেন্সিকে ইসলামি দলের যুগ্ন আহ্বায়ক খলিলুর রহমান মাদানি বলেন, শীর্ষ স্থানীয় ইউরোপীয় দেশ গুলোর মধ্যে একটি ফ্রান্স। দেশটি ভালো করেই জানে বিশ্বনবী মোহাম্মদ মুসলিম বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ নেতা। তিনি বলেছেন, শান্তিপূর্ণভাবে ফ্রান্সের পণ্য ব’য়ক’টের আন্দোলন গতি পেয়েছে।

 

আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে আ’হ্বান জানিয়েছে ঢাকায় নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে প্র’ত্যা’হার করতে।আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে, ঢাকায় আ’ন্দোলনকা’রীরা ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যাঁক্রোর প্রতিকৃতি তৈরি করে তাতে আ’গুন লাগিয়ে দিয়ে বি’ক্ষো’ভ প্রদর্শন করেছে। ফ্রান্স২৪ বলছে, পুলিশের ধারণা ৪০ হাজার লোক বি’ক্ষো’ভে অংশগ্রহণ করেছে। ঢাকায় ফ্রান্সের দূতাবাস অ’ভিমু’খে যাওয়ার সময় পুলিশ তাদের আ’টকায়। কোনো রকম স’হিং’সতা ছাড়াই অনন্ত ১০০ পুলিশ কর্মকর্তা সেখানে উপস্থিত থেকে ব্যারিকেড দিয়ে তাদের থা’মায়।

 

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ইসলামি রাজনৈতিক দল ইস’লামি আন্দোলন বাংলাদেশের ব্যানারে এটি আয়োজন করা হয়েছে। বাংলাদেশের বৃহৎ মসজিদ (বায়তুল মুকাররম) থেকে এটি শুরু হয়েছিল বলে খবরে প্রকাশ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *