Categories
জাতীয়

বাবার চল্লিশা শেষে কর্মস্থলে ফেরা হলো না তাদের

বাবার চেহলাম শেষে কর্মস্থলে ফিরছিলেন চট্টগ্রাম কাস্টমসের সিপাহি কক্সবাজারের কুতুবদিয়ার আমিনুল কবির। তার সঙ্গে ছিলেন বোনজামাই আক্কাস উদ্দিন ও তার মে’য়ে আফসানা আলম সোনিয়া। কিন্তু ভাগ্যের নি’র্মম পরিহাস। কর্মস্থলে ফেরার পথেই সড়ক দুর্ঘ’টনায় নি’হত হলেন তারা।

 

জানা গেছে, গতকাল সোমবার বিকেলে কক্সবাজারে পেকুয়া উপজে’লার সদর ইউনিয়নের নন্দীর পাড়া স্টেশন এলাকায় ট্রাক-সিএনজির মুখোমুখি সং’ঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নি’হত আমিনুল কবির ও আক্কাস উদ্দিন। গুরুতর আ’হত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে নেওয়া হলে মা’রা যান আমিনুলের ভাগনি আফসানা। ওই ঘটনায় নি’হত সিএনজি চালক আবু তা’লেব (৩০)। আ’হত হয়েছেন আরও তিন যাত্রী।

 

আমিনুল কুতুবদিয়া উপজে’লার উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের আজিম উদ্দিন সিকদার পাড়া ম’রহু’ম ভেন্ডার গিয়াস উদ্দিনের ছে’লে। তার বোনজামাই আক্কাস উদ্দিন (৪০) একই এলাকার সৈয়দ আলমের ছে’লে। আফসানা আক্কাস উদ্দিনের মেয়ে (১৯)। তিনি কুতুবদিয়া সরকারি কলেজের একাদশের ছা’ত্রী। ওই ঘটনায় নি’হত হন সিএনজির চালক পেকুয়া উপজে’লার মগনাম ইউনিয়নের মগঘোনা এলাকার খলিল আহমেদের ছে’লে।

 

আমিনুলের পরিবারের বরাত দিয়ে তার বন্ধু এডভোকেট এহ, এম সাইফুল্লাহ খালেদ জানান, আমিনুল কবির ভ’য়েস অব কুতুবদিয়ার সম্পাদক। বাবার চেহলাম সম্পন্ন করে গতকাল বোনজামাই ও ভাগনিকে নিয়ে চট্টগ্রামে কর্মস্থলে ফিরছিলেন। পথে দুর্ঘ’টনার শিকার হন তারা। এ ঘটনায় তাদের পরিবারে শোকের ছায়া নেমেছে।

 

পেকুয়া থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা সাইফুর রহমান বলেন, ‘দুর্ঘ’টনার খবর পেয়ে পু’লিশ ঘটস্থল থেকে নি’হতদের উ’দ্ধার করেন। আ’হতদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে পাঠানো হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *