Categories
জাতীয়

অভিযানের সময় নিজের স্ত্রী’র ফোনও রিসিভ করেন না ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। যোগদানের পর থেকেই খাদ্য, ওষুধ থেকে শুরু করে নিত্যপণ্যের গুণগত মান, ভে’জাল দ্রব্য, হাসপাতালে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষুধ, অতিরিক্ত ফি নেয়াসহ নানা অপরাধের বি’রু’দ্ধে অ’ভি’যান চালিয়ে আসছেন তিনি। বলা যায়, ভেজাল খাদ্যপণ্যের বি’রু’দ্ধে যু’দ্ধ করে যাচ্ছেন এ ম্যাজিস্ট্রেট। এসব কাজ করতে গিয়ে বারবার প্রভাবশালীদের বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন তিনি।

 

ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম একজন সত্যিকারের পেশাদার অফিসার। ভ্রাম্যমান আদালতের অভি’যান পরিচালনার সময় দো’ষীদের পক্ষে সুপারিশ আসতে পারে ভেবে নিজের স্ত্রী’র ফোনও রিসিভ করেন না তিনি।ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের অভি’যান প্রসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ঘটনা শেয়ার করেছেন সারাবাংলা ডটনেটের স্টাফ রিপোর্টার সাদ্দাম হুসেইন।

 

তিনি লিখেছেন, “গত ১৭ সেপ্টেম্বর হাতিরপুলে ক্ষমতাশীন একজন নেতার নকল ঔষুধের গোডাউনে অ’ভি’যানে চালিয়ে ৫ কোটি টাকার ঔষুধ জ’ব্দ করার সময় আমরা কয়েকজন সাংবাদিক সেখানে ছিলাম।

 

সে সময় কোনো এক কথার প্রসঙ্গে ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার ভাই আমাদের বলছিলেন, ‘অভি’যান চলাকালে আমি আমার আত্মীয় স্বজন তো দূরের কথা, নিজের স্ত্রীর ফোনও ধরি না। কারণ, দেখা যাবে অপরাধীদের কেউ না কেউ আমার আত্মীয়ও হতে পারে। তারা হয়তো আমার স্ত্রীকে দিয়েও আমার কাছে সুপারিশ পাঠাবে অপ’রা’ধীকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু সেটা তো আমি করতে পারবো না!”

 

ওই সাংবাদিক আরও লেখেন, ‘কথাটি কিন্তু কথার কথা কিংবা নিজেকে সাংবাদিকদের সামনে ভালো সাজাতে বলেননি তিনি। কারণ কতটা সৎ সাহস নিয়ে দেশের প্রতি টান থাকলে এ কথা তিনি বলতে পারেন তার বহু উদাহরণ আমাদের জানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *