Categories
জাতীয়

মালয়েশিয়ায় কারা ঘরে থাকবে আর কারা বাহিরে কাজ করবে, জানিয়েছেন মন্ত্রী

মালয়েশিয়ায় করোনার দ্বীতিয় ঢেউ সামলাতে সরকারর ঘোষিত কন্ডিশনাল মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার সিএমসিও চলছে গত ১৪ অক্টোবর থেকে। বলা হয়েছিল রেডজোন এলাকায় বেসরকারি ও পাবলিক সেক্টরে অফিসিয়াল কর্মীরা তারা ঘর থেকে বের হতে পারবেনা। তারা ঘরে বসেই অফিসিয়াল কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

 

এ ঘোষণার পর দেশটির এফএমএম সভাপতি তান শ্রী সোহ থিয়ান লাই এক বিবৃতিতে উদ্বেগ জানিয়ে বলেছেন, এতে করে ওয়ার্কার ও কর্মীদের মাঝে অনিশ্চিয়তা ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। কারা ঘরে থাকবে আর কারা বাহিরে কাজ করতে পারবে বিষয়টি পরিষ্কার নয়।

 

এরই পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার (২১ অক্টোবর) বিকালে দেশটির সিনিয়র মন্ত্রী দাতুক সেরী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে এক বিবৃতিতে বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন।

 

এ সময় তিনি বলেন, শিল্প কারখানা, পাবলিক সেক্টর, বেসরকারি অফিসের কর্মীরা ঘরে থেকেই কাজ করতে হবে। আর খাবারের দোকান, রেস্তোরাঁ, ফুডকোট, মুদি দোকান, ব্যাংক, ফার্মেসি, ক্লিনিকসহ অন্যন্যা খাতের কর্মীরা যথারীতি স্বাস্থ্য বিধি মেনে তাদের নিজ কর্মস্থলে কাজ করতে পারবেন।

 

পাবলিক সার্ভিস এজেন্সির ডিরেক্টর জেনারেল জানান, সরকারি চাকরিতে ৩০ ভাগ কর্মী অফিসে উপস্থিত থেকে কাজ করতে পারবেন, বাকিরা বাড়িতে বসে কাজ করবেন। আর ব্যাংক, বাীমা, অর্থ, প্রশাসন, আইন বিভাগের ১০ ভাগ কর্মী অফিসে উপস্থিত থেকে কাজ করতে পারবেন, বাকিরা বাড়িতে কাজ করবেন। তবে কোন কর্মী বাসায় এবং অফিসে কাজ করবেন সেটা নির্ধারণ করে দিবেন সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রধান কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *