Categories
জাতীয়

পাপিয়া ও তার স্বামী সুমনের ২৭ বছরের জেল

অ’স্ত্র মাম’লায় শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান সুমনকে ২৭ বছরের কা’রা’দ’ণ্ড দিয়েছেন আদা’লত। ঢাকার ১ নম্বর স্পেশাল ট্রাইব্যুনালের বিচারক কেএম ইমরুল কায়েশ সোমবার দুপুরে এ রায় ঘোষণা করেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা জানান, পুরো দেশ পাপিয়া দম্পতির এ রায়ের অপেক্ষায় ছিল। আ’সামি’দের বি’রু’দ্ধে অভি’যোগ প্রমাণ হয়েছে।

 

ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল্লাহ আবু বলেন, মামলার সাক্ষ্য-প্রমাণে আসা’মিদের বি’রু’দ্ধে অভি’যোগ প্রমাণ করতে স’ক্ষ’ম হয়েছি। এ রায়ে আমরা সন্তুস্ট।

 

অন্যদিকে মাম’লাটির বিচার দ্রুত শেষ হওয়ায় আশ’ঙ্কায় রয়েছে আসা’মিপক্ষের আইনজীবীরা। পাপিয়ার দম্পতির আইনজীবী শাখাওয়াত উল্যাহ ভূঞা বলেন, আমরা শুরু থেকে দা’বি করে আসছি এটা একটা সাজানো মাম’লা। হয়’রানি করার জন্য তাদের কাছ থেকে অ’স্ত্র উ’দ্ধার দেখানো হয়েছে। সাক্ষীদের জে’রায় আমরা এটা প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছি। আসা’মিরা অ’স্ত্র উ’দ্ধারের সঙ্গে জড়িত না।

 

তিনি বলেন, মাত্র ১২ কার্যদিবসে মাম’লাটির বিচার শেষ হচ্ছে। আগে এত দ্রুত এ রকম কোনো মাম’লার বিচার শেষ হয়েছে বলে জানা নেই। রাষ্ট্রপক্ষ কেন এত দ্রুত মাম’লাটির বিচার শেষ করতে তৎপর তা বুঝতে পারছি না।

 

এর আগে, গত ২২ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জাল টাকা বহন ও অ’বৈধ টাকা পা’চারের অভি’যোগে শামীমা নূর পাপিয়া ওরফে পিউসহ চার জনকে গ্রে’ফতার করে র‌্যাব। এরপর ২৩ ফেব্রুয়ারি সকালে শামিমা নূর পাপিয়ার রাজধানীর ফার্মগেটের ইন্দিরা রোডের বাসায় অভি’যান চালিয়ে একটি বিদেশি পি”স্ত’ল, দুটি ম্যাগা’জিন, ২০ রাউ’ন্ড গু”লি, পাঁচ বোতল বিদেশি ম”দ, ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা, পাঁচটি পাসপোর্ট, তিনটি চেক, বেশ কিছু বিদেশি মুদ্রা ও বিভিন্ন ব্যাংকের ১০টি এটিএম কার্ড উ”দ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় শেরেবাংলা নগর থানায় একটি অ”স্ত্র ও একটি বিশেষ ক্ষ’মতা আইনে এবং বিমানবন্দর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে আরেকটি মা”ম’লা করা হয়।

 

পাপিয়ার বি’রু’দ্ধে অভি’যোগ, তরুণীদের চাকরি দেয়ার কথা বলে ঢাকায় এনে দেহব্যবসায় জড়িত করতেন পাপিয়া। তিনি প্রভাবশালীদের ব্লা’ক মে’ইল করে বড় বড় কাজ বাগিয়ে নিতেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *