Categories
জাতীয়

আমি তো দেখতেছি আমার জনপ্রিয়তা বাড়ছে: কাজী সালাউদ্দিন

আলোচনা-সমালোচনাকে পাশ কাটিয়ে আবারও দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ আসনে বসলেন কাজী মো. সালাউদ্দিন। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচনে ৯৪ ভোট পেয়ে চতুর্থবারের মতো সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নিতে চলেছেন কিংবদন্তি এই ফুটবলার।

 

গতকাল শনিবার সকালে সাধারণ সভা (এজিএম) ও দুপুরে শুরু হয় নির্বাচন। সন্ধ্যা পর্যন্ত ভোট গ্রহণের পর রাত আটটার পর ধাপে ধাপে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ফল ঘোষণা করা হয়। রাত ১২টার পেরিয়ে যাবার পর বিজয়ীদের নিয়েই কথা বলতে আসেন কাজী সালাউদ্দিন।

 

তার দাবি দেশের ফুটবলের জন্য ভালো কিছু করার ফল হিসেবে নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন তিনি। সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমা’র শক্তি আমা’র ফুটবলাররা। জাতীয় দলের সব খেলোয়াড়রা আমাকে ভালোবাসে।

 

আজকের নির্বাচনে সব খেলোয়াড় আমাকে শুভেচ্ছা জানাতে এসেছে। এটা অনেক বড় জিনিস। যারা আজকে খেলছে, এখন দেশের ফুটবলকে এগিয়ে নিচ্ছে তারা আজকে আমাকে শুভকামনা জানাতে এসেছে। তখনই আমা’র মনে হয়েছে, অবশ্যই আমি ভালো কিছু করেছি তাই তারা আমাকে এতটা সম’র্থন করে।’

 

নির্বাচনের আগ থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে রাস্তায় পর্যন্ত সালাউদ্দিন বিরোধী আ’ন্দোলন দেখা যায়। এমনকি ভোট চলাকালীন প্যান প্যাসেফিক সোনারগাঁও হোটেলের সামনেও কয়েকজন তরুণ প্লা-কার্ড নিয়ে মানবন্ধন করেন। দিনের পর দিন ভোট বাড়ছে। এর কারণ হিসেবে নিজের করা ভালো কাজ রয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

 

অ’ভিজ্ঞ এই সংগঠক বলেন, ‘ভোটারদের নিয়ে গণমাধ্যমে অনেক কথা শুনেছি। ভোটাররা আমাকে ভোট দেবে না নাকি, এমন অনেক কথা শুনেছি। ২০০৮ সালে আমি ৮০ ভোটে জিতেছি, এরপর ৮৪ ভোটে জিতে সভাপতি হয়েছি, এবার পেয়েছি ৯৪ ।

 

আমি তো দেখতেছি আমা’র জনপ্রিয়তা ও ভোট বাড়ছে। তো মানুষ যাই বলুক না কেন, ফুটবল যারা করেন, যারা ফুটবলের সঙ্গে আছেন তাদের কাছে তো আমি জনপ্রিয়। ধন্যবাদ সবাইকে।’ এবারের নির্বাচনের আগে ৩৬ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছিলেন কাজী সালাউদ্দিনের সম্মিলিত পরিষদ। তখন তিনি জানিয়েছিলেন, ‘যদি’ নির্বাচিত হন সব পূরণ করার চেষ্টা করবেন। নির্বাচিত হয়েছেন, তাই এখন সেই ‘যদি’কে বাস্তবে রূপান্তর করা সম্ভব কি না? জবাবে তিনি বলেন, ‘আমা’র মনে হয় সম্ভব।

 

তবে পৃথিবীতে তো সব কিছু শতভাগ সম্ভব না। তবে চেষ্টা থাকবে ইশতেহারে যা আছে সব পূরণ করে যেন আপনাদের হাতে দিতে পারি। এতে আপনাদের সবার সহযোগীতা চাই।’

 

সম্মিলিত পরিষদ ছাড়াও অনেকেই নির্বাচিত হয়েছেন তাদের কে সঙ্গে রাখা হবে? ‘তাদের ডেলিগেটরা নির্বাচিত করেছেন। অবশ্যই তাদের নিয়ে কাজ করবো। এটাতো রাজনৈতিক দল না যে তাদের দূরে রাখা হবে।’ যোগ করেন সালাউদ্দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *