Categories
জাতীয়

সাহেদের মতোই দাড়ি কেটে ছদ্মবেশে সীমান্ত পেরিয়ে ভারত যেতে চেয়েছিলেন সাইফুর

স্বামীকে বেঁধে রেখে সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে তরুণীকে গ’ণধ’ র্ষণের ঘট’নায় মা’মলার প্রধান আস’মি ও ছা’ত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমানকে গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ।

 

দেশব্যাপী আলোচিত এ ঘটনায় গ্রে’ফতার এড়াতে ছ’দ্মবেশ ধারণ করেছিলেন এই ছা’ত্রলীগ নেতা। সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার সীমান্ত হয়ে ভার’ত পালাতে চেয়ে’ছিলেন। এ জন্য রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ভোর ৬টার দিকে তিনি ছাতক নোয়ারাই এলাকায় সুরমা নদীর খে’য়াঘাটে যান। খবর পেয়ে সেখানে যান ছা’তক সার্কেলের স’হকারী পু’লিশ ‘সুপার (এএসপি) বি’ল্লাল হোসেন।

 

এএসপি বিল্লাল হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ছবিতে ‘সাইফুরের দাঁড়ি ছিল। তিনি দাঁড়ি কে’টে মু’খে মা’স্ক’ লাগিয়ে খেয়াঘাটে যান। পরনে ছিল টি-শার্ট ও প্যান্ট। ভোরে সী’মান্ত এলাকায় পৌঁ’ছান। হয়তো সী’মান্ত এলাকায় গিয়ে কারও স’ঙ্গে যোগাযোগ করার কথা ছিল।

 

সাইফুরকে পা’লা’তে কেউ স’হা’য়তা করেছেন কিনা, তার খোঁজ করতে ছাতক ও দোয়ারাবাজারে তাঁর আ’ত্মীয়দের স’ম্প’র্কে খোঁ’জ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান পু’লিশের এই ক’র্মকর্তা।

 

সুনামগঞ্জের ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, ভোর ছয়টার দিকে সাইফুরকে আ’ট’ক করে থানা হে’ফাজতে নেওয়া হয়। এরপর পরিচয় নি’শ্চিত হয়ে সা’ইফুরকে গ্রে’ফতার দেখানো হয়। দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে ছা’তক থানা থেকে সিলেট মহানগর পু’লিশের শাহপরান থানা-পুলিশের কাছে হ’স্তা’ন্তর করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *