Categories
জাতীয়

প্রবাসী স্বামীর কষ্টার্জিত ১২ লাখ টাকা পয়সা হাতিয়ে নিলেন প্রতারক স্ত্রী

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার কালাপাহাড়িয়ায় স্ত্রী কর্তৃক ভয়ংকর প্রতারণার শিকার হয়েছেন কাতার প্রবাসী স্বামী মুহাম্মদ সফর আলী (৩০)।

 

স্ত্রী সখিনা আক্তার (২৫) জমি ক্রয়ের নাম করে কাতার প্রবাসী স্মামী মুহাম্মদ সফর আলীর কাছ থেকে ১২’লাখ টাকা মূল্যের জমি ক্রয়ের জন্য প্রতারণা করে হাতিয়ে নেয়।

 

এ ব্যাপারে স্ত্রী সখিনা আক্তারসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে প্রবাসী মুহাম্মদ সফর আলীর বাবা আসাদ মিয়া (৫৫) বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় গত সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের হাজীর টেক গ্রামের আসাদ মিয়ার ছেলে কাতার প্রবাসী মুহাম্মদ সফর আলী’র সাথে একই এলাকার নরুল ইসলামের মেয়ে সখিনা আক্তারের সাথে ৭ বছর পূর্বে পারিবারিক ভাবে বিবাহ হয়। বিয়ের পর সফর আলী কাতারে চলে যায়।

 

২০১৮ সালে স্বামী সফর আলী ১২ লাখ টাকা মূল্যের ২২.৫০ শতাংশ নাল জমি ক্রয় করে। কিন্তু স্বামী প্রবাসে থাকার সুবাদে অভিযুক্ত ফাতেমা আক্তার, আমেনা বেগম, নুরুল ইসলাম ও শুক্কুর আলীর সহযোগিতায় স্ত্রী সখিনা আক্তার ঐ জমি স্বামী সফর আলীর নামে রেজিষ্ট্রি না করে প্রতারণা করে নিজের নামে রেজিষ্ট্রি করে নেয়।

নিজের নামে জমি রেজিষ্ট্রি করার পর থেকে স্বামী সফর আলীর সংসার ছেড়ে তার নিজ পিত্রালয়ে অবস্থান করছেন প্রতারক স্ত্রী সখিনা আক্তার। উক্ত সদস্যদের সাথে নিয়ে স্বামী সফর আলীর পরিবারে ঝগড়া বিবাদের পাশাপাশি প্রতিনিয়ত হামলা, মামলার হুমকি প্রদান করে আসছে। এবং স্বামী সফর আলীর সংসার করবে না বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন প্রতারক স্ত্রী সখিনা আক্তার ও তার পরিবার।

 

এই ঘটনায় সফর আলীর পিতা আসাদ আলী থানায় অভিযোগ করা সত্বেও এ যাবত কোন সুরাহা না পাওয়ায় অবশেষে ২১ সেপ্টেমর সোমবার জেলা পুলিশ সুপারের বরাবর নিঃস্ব ছেলের অর্থ ও সম্পদ ফিরে পেতে ন্যায় বিচার চেয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

 

কাতার প্রবাসী অসহায় স্বামী সফর আলী জানান, আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে অভিনব কায়দায় স্ত্রী সখিনা আক্তারও তার স্বজনরা আমার সাথে প্রতারনা করেছে। আমার কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে ক্রয় করা জমি ও গচ্ছিত টাকা পয়সা আত্মাসাৎ করার পর থেকেই আমার সাথে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে।

 

এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে বিচারের দাবি জানান সফর আলী। তার পিতা আসাদ আলী জানান, আমার ছেলে কষ্টার্জিত অর্থ সম্পদ ফিরে পেতে প্রশাসন সহ সমাজের গন্যমান্য সর্বস্তরের সহযোগিতা চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *