Categories
জাতীয়

হাসপাতাল থেকে পুলিশ আবার নিয়ে গেছে নুরকে

সন্ধ্যায় গ্রে’ফতারের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুরকে রাত পৌনে ১১টায় ছেড়ে দেয়া হয়েছিল। ছাড়া পেয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি হয়েছিলেন নুর। ওখান থেকে রাত পৌনে ১২টার দিকে আবার ডিবি কা’র্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে নুরকে।

 

দ্বিতীয় দফায় নুরকে নিয়ে যাওয়ার সময় ছাত্র অধিকারের নেতাকর্মীরা প্রতি’রো’ধ করার চেষ্টা করে গাড়ির সামনে বসে স্লো’গান দেন। নূরের স্ত্রী তার ছোট বাচ্চাকে নিয়ে গাড়ির সাথে ঝুলে পড়েন। পরে পুলিশ লা’ঠিচা’র্জ করে তাদেরকে স’রিয়ে দিয়ে নূরকে নিয়ে যায়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া।

এর আগে রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক শিক্ষার্থী লালবাগ থানায় এ মাম’লাটি করেন। মাম’লায় মোট ছয়জনকে আসা’মি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ধ ‘র্ষ’ণে সহযো’গী হিসেবে নুরুল হক নুরের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

 

এদিকে এ মা’মলার তদন্ত প্র’তিবেদন দাখিলের জন্য ৭ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন আ’দালত। সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম ইয়াসমিন আরা মাম’লার এজাহার গ্রহণ করে প্রতিবেদন দা’খিলের জন্য এ দিন ধার্য করেন।

 

মা’মলার প্র’ধান আসা’মি করা হয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকে। ধ ‘র্ষ’ণের স্থান হিসেবে লালবাগ থানার নবাবগঞ্জ বড় মসজিদ রোডে হাসান আল মামুনের বাসার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। বাদী শিক্ষার্থী ঢাবির বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে থাকেন।

 

নুর ও মামুন ছাড়া মাম’লার অন্য আসা’মিরা হলেন- বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক নাজমুল হাসান সোহাগ, বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক (২) মো. সাইফুল ইসলাম, ছাত্র অধিকার পরিষদের সহ-সভাপতি মো. নাজমুল হুদা এবং ঢাবি শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ হিল বাকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *