Categories
জাতীয়

টিকটক ও উইচ্যাট শিগগিরই বন্ধ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে

আগামীকাল রোববার থেকে যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাপ স্টোরে নিষিদ্ধ হচ্ছে টিকটক ও উইচ্যাট। অবশ্য শেষ মুহূর্তে যদি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চুক্তিতে সম্মত হন, তবে পরিস্থিতি ভিন্ন হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য বিভাগ বলেছে, তারা যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো প্ল্যাটফর্মের অ্যাপ স্টোর থেকে মেসেজিং ও ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ ডাউনলোড বন্ধ করে দেবে।

আজ শনিবার বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।ট্রাম্প প্রশাসনের অভিযোগ, চীনা প্রতিষ্ঠান দুটি যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি এবং তারা চীনের কাছে তথ্য সরবরাহ করতে পারে। চীন ও তার দেশের দুটি কোম্পানির পক্ষ থেকে এ অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, কাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রে উইচ্যাট বন্ধ হলেও টিকটক আগামী ১২ নভেম্বর পর্যন্ত চালু থাকবে। এরপর তা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে।

টিকটকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা ট্রাম্প প্রশাসনের ওই নির্দেশে হতাশ এবং বাণিজ্য বিভাগের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করছে। ট্রাম্প প্রশাসনের উদ্বেগ কমাতে ইতিমধ্যে সব ধরনের স্বচ্ছতার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে।টিকটক কর্তৃপক্ষ বলেছে, ‘আমরা অন্যায্য নির্বাহী আদেশকে চ্যালেঞ্জ জানাতে থাকব। আদেশ যথাযথ প্রক্রিয়া মেনে করা হয়নি এবং তা মার্কিন জনগণ ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের কণ্ঠস্বর ও জীবিকার ক্ষেত্রে হুমকি সৃষ্টি করেছে।’

উইচ্যাটের মালিকপক্ষ টেনসেন্টের পক্ষ থেকে ট্রাম্প প্রশাসনের অ্যাপ নিষিদ্ধের ঘোষণাকে দুর্ভাগ্য বলে বর্ণনা করা হয়েছে। তারা বলেছে, দীর্ঘ মেয়াদে সমস্যার সমাধান বের করতে মার্কিন সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাবে।

গত আগস্টে টিকটক ও উইচ্যাট নিষিদ্ধ করার বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সই করা নির্বাহী আদেশ অনুসরণ করছে দেশটির বাণিজ্য বিভাগ। এ আদেশে মার্কিন কোম্পানিগুলোকে চীনা কোম্পানির সঙ্গে ব্যবসা বন্ধ করতে ৪৫ দিন সময় বেঁধে দেওয়া হয়।

যদি যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ওরাকলের সঙ্গে চীনের বাইটড্যান্স পরিকল্পিত চুক্তির বিষয়ে সম্মত হয় এবং তাতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অনুমোদন দেন, তবে অ্যাপটি নিষিদ্ধ হবে না।গতকাল শুক্রবার ট্রাম্প বলেন, ‘টিকটকের সঙ্গে দ্রুত চুক্তি হয়ে যাবে। যুক্তরাষ্ট্র যদিও চীন থেকে নিরাপদ থাকতে চায়, তবে টিকটক দারুণ কোম্পানি, অনেক জনপ্রিয়। আশা করি, অনেক মানুষকে খুশি করতে পারব। তবে আমাদের নিরাপত্তাও দরকার হবে।’

যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যমন্ত্রী উইলবার রস এক বিবৃতিতে বলেন, প্রেসিডেন্টের নির্দেশনা মোতাবেক মার্কিন জনগণের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ ঠেকাতে চীনের ক্ষতিকর অ্যাপগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।বাণিজ্য বিভাগের পক্ষ থেকে উইচ্যাট ও টিকটকের বিষয়ে নির্দিষ্ট হুমকির বিষয়ে বিস্তারিত বলা হয়নি। এসব অ্যাপ ব্যবহারকারীর ব্যাপক তথ্য সংগ্রহ করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

ট্রাম্প প্রশাসনের আদেশ অনুযায়ী, কাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রে উইচ্যাট ব্যবহার করে অর্থ স্থানান্তর বা কোনো লেনদেন করা যাবে না। টিকটক আরও কিছুদিন ব্যবহার করা হলেও নতুন কোনো আপডেট পাওয়া যাবে না। টিকটকের সমস্যা সমাধানে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত সময় দিয়েছেন ট্রাম্প।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *