Categories
বিনোদন

অপু বিশ্বাসের ‘পলিটিক্সের’ শিকার হয়েছিলেন চিত্রনায়ক মারুফ

নিজের প্রথম ছবি ‘ইতিহাস’ দি’য়েই বা’জি’মাত করেছিলেন এক সময়ে’র জন’প্রিয় নায়ক কাজী মারুফ। পে’য়ে’ছিলেন জা’তীয় চল’চ্চিত্র পুর’স্কারও। এরপর ‘অ’ন্ধ’কা’র’, ‘ক্যাপ্টেন মারুফ’, ‘দে’হর’ক্ষী’’সহ বেশ কিছু ব্যবসা’সফল ছবি উপ’হার দিলেও ২০১৫ সাল থেকে চল’চ্চিত্রে অনি’য়’মিত হয়ে প’ড়েন তিনি। বি’য়ে করে আ’মে’রি’কায় বস’বাস শুরু করেন। তার আরও একটি প’রিচয় আ’ছেন তিনি প্রখ্যা’ত পরি’চালক কাজী হা’য়াতে’র পূত্র।

 

সম্প্রতি এক সা’ক্ষাৎকা’রে মা’রুফ জা’না’লেন তিনি চিত্র’নায়ি’কা অপু বিশ্বাস কর্তৃক ‘ফিল্ম প’লিটি”ক্স’ এর শি’কা’র হয়েছেন। যার জন্য ক্যা’রি’য়ারে অনেক ক্ষ’তি হয়ে’ছে তার। অভি’মা’ন করে তাই প্র’বাস জী’বন বেঁ’ছে নি’য়ে’ছেন।

 

মারুফ বলেন, অপু বি’শ্বাস তখন একসঙ্গে ১১ টা ছবির সা’ইন করে’ছিলো। তখন মান্না আ’ঙ্কেল মা’রা’ গেলেন মাত্র। সে সময় মা’ন্নান নামে এক মেক’আপ’ম্যান ছিলো। তিনি তার প্রথম ছবিতে আমাকে নায়ক হতে অ’নুরো”ধ কর”তেছি’লেন। আমার বিপরীতে থা’কবে অপু বিশ্বাস। সে জা’নিয়ে’ছিলো, আমি রাজি না হলে অপু বি’শ্বা’সের শি’ডি’উল পাবে না। মা’ন ভাইয়ের অ’নুরো’ধে রা’জি হই।

 

ছবি’টি’র শেষ দিনে’র শুটিং কর’ছিলা’ম সা’ভা’রে আমার এক বন্ধূ’র এক হাসপাতালে। ওইদিন অপু বি’শ্বাস আ’মাকে বলে গেলে’ন, আ’পনা’র ম’তো হি’রো আমি দে’খিনি। আপনি অনেক ভালো এক’জন মানুষ। মা’জা’র বিষ’য় হচ্ছে, তার পরের দি’নই অপু বিশ্বাস আমার নামে তার গ’লা’র চেই’ন ও মো’বাইল চু’রি’র মা’ম’লা দে”য়। যে’খান থেকে এগু’লো হা’রায় আ’মি তখন সেখা’নে উপ’স্থিতিও ছিলা’ম না। অথচ অপু আ’মা’কে চো’র বা’নি’য়ে কাঠ’গড়া”য় দাঁ”ড় করায়।

 

নায়ক মা’ন্নার মৃ’ত্যু’র পর অ্যা’ক’শন হি’রো হি’সেবে সে সময় প’রিচাল’ক ও প্র’যোজ’ক’দের কাছে কাজী মারু’ফের বেশ চাহি’দা তৈরি হয়। মূলত সে চা”হিদা’কে ন’ষ্ট ক’র’তেই অপু এমনটি ক’রেছেন বলে ই’ঙ্গি’ত দিয়ে ‘ইতি’হাস’ খ্যাত এ নায়ক বলেন, শু’নে’ছি’লাম আমা’র বা’বা’র সঙ্গে এ’ফডিসি”তে অপু বি’শ্বা’সের কি একটা বি’ষয় নি’য়ে ঝা’মে’লা হয়ে’ছি’লো।

 

যার জন্য সে আ’মা’কে চো’রে’র দা’য়ে কা’ঠগ’ড়ায় দাঁ’ড় করায়। সে সময় অপু স’ঙ্গে আ’মার অনেক ছ’বিতে অভি’নয়ের প্র’স্তা’ব আস’ছি’লো। অপু সে স’ময়’টাতে আ’মা’র সঙ্গে এ পলি’টিক্স’টা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *