Categories
জাতীয়

পরকীয়ার টানে সন্তান নিয়ে বাংলাদেশে এসেছে ভারতীয় গৃহবধূ!

পরকীয়া প্রেমের টানে ভারতীয় এক গৃহবধূ বাংলাদেশে প্রেমিকের বাড়িতে এসে বিজিবির হাতে আ’টক হয়েছেন। জানা যায়, প্রায় এক মাস ঘর-সংসার করার পর সতিনের সাথে ঝ’গড়া হয় ওই ভারতীয় গৃহবধূর। পরে সতিন বিজিবিকে খবর দিলে শুক্রবার তিনি আ’টক হন।

 

ভারতীয় ওই গৃহবধূর নাম শ্রীমতি সোনিয়া সাউ (২৯)। তার সঙ্গে সাথে তিন বছরের এক ছেলে সন্তান রয়েছে। সে ভারতের ছত্রিশগড় প্রদেশের মঙ্গলী জেলার জেড়াগাও থানার মৃ’ত ফাগুরাম সাউ ও রাজকুমারী সাউয়ের মেয়ে বলে জানা গেছে।

 

বিজিবি সূত্র জানায়, সোনিয়ার প্রথম বিয়ে হয় একই রাজ্যের ধনউড়া এলাকার রোহিত শর্মার সাথে। ওই গৃহবধূর আগের স্বামীর এক ছেলে এক মেয়ে আছে। বর্তমানে ওই নারী বিজিবির হেফাজতে রয়েছে । অ’বৈধ অনুপ্র’বেশে দায়ে তাকে থা’নায় সোপর্দ করা হবে বলে বিজিবি জানিয়েছে।

 

ওই এলাকার আবু বক্কর ও আ. ছালাম জানান, কুড়িগ্রাম জে’লার ফুলবাড়ী উপজে’লার সীমান্তঘেঁষা কাশিপুর ইউনিয়নের অনন্তপুর চানদোলার পাড় গ্রামের মৃ’ত আবুল কাসেম আলীর ছেলে ওবায়দুল হক। কয়েক বছর আগে সে দিল্লিতে গিয়ে রাজমিস্ত্রির কাজ শুরু করেন।

 

কাজের সুবাদে ওই নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে দিল্লিতে সোনিয়া ও ওবায়দুল বিয়ে করে। তাদের একটি ছেলে সন্তান আছে। ছেলেটির বয়স তিন বছর। ওবায়দুল হকের পাসপোর্ট ও ভিসা থাকায় বৈধ ভাবে দেশে ফিরে আসেন।

 

তবে মোবাইলে ফোনে কথা হতো ভারতীয় ওই গৃহবধূর সাথে। সোনিয়া এক মাস আগে দালালের মাধ্যমে কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী সী’মান্ত পার হয়ে ওবায়দুল হকের বাড়িতে এসে ওঠে। ওবায়দুল হকের প্রথম স্ত্রী কল্পনা বেগম প্রাথমিকভাবে স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ে মেনে নেয়।

 

কিন্তু কয়েকদিন আগে কল্পনা বেগমের সাথে স্বামী ওবায়দুল হকের ঝ’গড়া হয়। এর জে’র ধ’রে সোনিয়া যে অ’বৈধভাবে বাংলাদেশে এসে ঘর সংসার করছেন সেই খবর বিজিবির কাছে পৌঁছে দেয় প্রথম স্ত্রী। খবর পেয়ে অ’বৈধ অনুপ্র’বেশের দায়ে ফুলবাড়ীর অনন্তপুর বিওপির বিজিবি সদস্যরা শুক্রবার দুপরে ওই সোনিয়া সাউকে আ’টক করে।

 

ভারতীয় ওই নারী জানান, প্রেম করে তিন বছর আগেই ভারতের দিল্লিতে আমরা বিয়ে করেছি। আমি জন্মভূমি ও ছেলে-মেয়ে ও পরিবারের মায়া ত্যা’গ করে বাংলাদেশে এসেছি। আমার একটি এখন ছেলে সন্তান রয়েছে। আমি এখানেই ঘর-সংসার করে থাকতে চাই।

 

এ প্রসঙ্গে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) লালমনিরহাট ১৫ ব্যাটালিয়ন কমান্ডার লে. কর্নেল এস এম তৌহিদ-উল-আলম জানান, ওই গৃহবধূকে আ’টক করা হয়েছে। ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বিএসএফের সাথে কথা হয়েছে। গৃহবধূর সঠিক পরিচয় তাদের জানা নেই। সে জন্য ওই নারীকে তারা ফিরিয়ে নেবেন না বলে জানিয়েছে। অ’বৈধ অনুপ্র’বেশে দায়ে ওই নারীকে থা’নায় সোপর্দ করা হবে ।

 

ফুলবাড়ী থা’নার অফিসার ইনচার্জ রাজীব কুমার রায় জানান, বিজিবি কর্তৃক ভারতীয় এক গৃহবধূ আ’টকের ঘ’টনা তিনি জেনেছেন। রাতের কোনো সময় তাদের থা’নায় সোপর্দ করা হতে পারে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *