Categories
আন্তর্জাতিক

তিন মাসের কোর্স ছাড়া মিলবে না বিয়ের অনুমতি

পাত্র-পাত্রী এবং পরিবারের সম্মতি থাকলেই গাঁটছড়া বেঁধে ফেলার রীতি বদলে যেতে চলেছে ইন্দোনেশিয়ায়। ২০২০ সাল থেকে দেশটিতে বিয়ের আগে পাত্র-পাত্রীকে আবশ্যকীয়ভাবে তিন মাসের একটি সরকারি কোর্স করতে হবে। সেই কোর্সের সার্টিফিকেট মেলার পরেই বিয়ে পড়াতে পারবেন কাজী।

 

সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়ার যুব উন্নয়ন ও সংস্কৃতিমন্ত্রী মুহাদজির এফেন্দি এমন ঘোষণা দেন। আগামী বছর থেকে এই আইন চালুর সম্ভাবনার কথাও জানান তিনি।সংবাদমাধ্যম জাকার্তা পোস্টের খবরে বলা হয়, তিন মাসের ওই কোর্সে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জ্ঞান, সন্তান লালনপালন, বিভিন্ন রোগের প্রাথমিক শিক্ষা, ঘরোয়া অর্থনীতিসহ পরিবার সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষা দেওয়া হবে।

 

মুহাদজির এফেন্দি বলেন, “যারা বিয়ে করতে যাচ্ছে তাদের পরিবার গঠনের বিষয়ে কিছু নির্দেশনা নিতে হবে। এরপরই কোনো হবু দম্পতিকে সার্টিফিকেট দেওয়া হবে।তিনি আরও বলেন, হবু দম্পতির বিয়ে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে যথেষ্ট জ্ঞান আছে কিনা তা জানতে ওই সার্টিফিকেট ব্যবহার করা হবে।

 

এই নিয়ম ইন্দোনেশিয়ায় একেবারে নতুন নয় উল্লেখ করে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের গণস্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক কিরানা প্রিতাসারি বলেন, এই আইন বর্তমানে ইন্দোনেশিয়ায় চালু রয়েছে। তবে আসছে সময়ে তা সারা দেশব্যাপী জারি করা হবে। তবে কোর্স করতে নিজের টাকা ব্যয় করতে হবে না ইন্দোনেশিয়ার বাসিন্দাদের। সরকারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যেই করানো হবে এই কোর্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *