Categories
জাতীয়

প্রথমার্ধ শেষে আবারও মাঠে নেমেছে নেইমাররা

পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ও পাঁচবারের রানার্স বায়ার্ন মিউনিখের বিরুদ্ধে প্রথমবার ফাইনালে ওঠা প্যারিস সাঁ জার লড়াই। একদিকে টমাস ম্যুলার, রবার্ট লেওয়ানডস্কি, ম্যানুয়েল ন্যুয়ের, অন্যদিকে নেইমার, কিলিয়ান এমবাপে, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে দর্শকশূন্য মাঠেই জমজমাট লড়াইয়ের অপেক্ষা। টিভির পর্দায় চোখ রাখছেন সারা বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীরা। ম্যাচের জমজমাট প্রথমার্ধ আক্রমণ ও প্রতি আক্রমণের মধ্য দিয়ে শেষ হলেও গোলের দেখা পায়নি কোন দলই।

 

এখনও পর্যন্ত ফ্রান্সের কোনও ক্লাব একবারই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে। ১৯৯৩ সালে এসি মিলানকে হারিয়ে ইউরোপের সেরা ক্লাবের খেতাব জিতে নিয়েছিল মার্সেই। এরপর আর জিনেদিন জিদান, থিয়েরি অঁরির দেশে এই খেতাব যায়নি। এবার সেই খরা কাটানোর সুযোগ রয়েছে। বাধা একটাই, বায়ার্ন দুরন্ত ফর্মে আছে।

 

কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সেলোনাকে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত করার পর সেমি-ফাইনালে ফ্রান্সেরই ক্লাব লিঁয়কে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দেন লেওয়ানডস্কিরা। অন্যদিকে, জার্মানির ক্লাব আর বি লিপজিগকে ৩-০ গোলে হারিয়ে দিয়ে প্রথমবার ফাইনালে উঠেছেন নেইমাররা। এবার তাঁদের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। ইতিহাস গড়ার সুযোগ।

 

পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতলেও, এখনও পর্যন্ত একবারও এই ট্রফি না পাওয়া পিএসজি-র বিরুদ্ধে মুখোমুখি লড়াইয়ে কিন্তু পিছিয়ে বায়ার্ন। এই প্রতিযোগিতায় এখনও পর্যন্ত দু’দল আটবার মুখোমুখি হয়েছে। পাঁচবার জিতেছে ফ্রান্সের দলটি, তিনবার জিতেছে জার্মানির চ্যাম্পিয়ন ক্লাব। ২০১৭-১৮ মরসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দু’দলই এক গ্রুপে ছিল। প্রথম পর্বের ম্যাচে ৩-০ গোলে জিতেছিল পিএসজি। দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচে অবশ্য ৩-১ গোলে জেতে বায়ার্ন।

 

বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী, আজ, রাত ১.০০ টায় শুরু হয়েছে ফাইনাল ম্যাচ। খেলা দেখা যাচ্ছে সোনি টেন ২ চ্যানেলে। এছাড়া লাইভ স্ট্রিম দেখা যাচ্ছে সনিলিভে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *