Categories
জাতীয়

মেজর সিনহার মোবাইল ফোনও গায়েব!

কক্সবাজারের টেকনাফে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহা’ম্মদ রাশেদ খান হ’ত্যার ঘ’টনায় নানা প্রশ্নের উত্তর খুঁ’জছে র‌্যাব। এটি পরিকল্পিত হ’ত‌্যাকাণ্ড না কি দু’র্ঘটনা, সাবেক ওসি প্রদীপ দাশ না কি এসপির নি’র্দেশে গু’লি করেন লিয়াকত, এসব তথ‌্য জানতে চে’ষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ত’দন্ত সংশ্লিষ্টরা।

 

সিনহার ব্যবহৃত ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোনও খতিয়ে দেখার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন তারা। শনিবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে র‌্যাবের আ’ইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লেফটেন‌্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘ত’দন্ত চলছে। ত’দন্তাধীন বিষয়ে এখনই কিছু বলতে পারব না। তবে এতটুকু বলতে পারি, আমরা চাঞ্চল্যকর অনেক প্রশ্নের উত্তর খুঁ’জছি।’

 

মুঠোফোনে মা’মলার ত’দন্ত কর্মক’র্তা জ্যেষ্ঠ সহকারী পু’লিশ সুপার খায়রুল ইস’লাম বলেন, ‘রি’মান্ডে আসা’মিদের নিয়ে জি’জ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তারা সেদিনের ঘ’টনার বিষয়ে যেসব তথ্য দিয়েছেন, তা সংরক্ষণ করা হচ্ছে।’

 

ত’দন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সিনহা হ’ত‌্যাকাণ্ডের একমাত্র প্রত‌্যক্ষদর্শী সাহেদুল ই’সলাম সিফাত জানিয়েছেন, চেকপোস্টে সিনহা গাড়ি থেকে নামেন। তার পি’স্তলটি গাড়িতেই ছিল। অবশ্য ঘ’টনার পর টেকনাফ থা’নার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ দা’বি করেছিলেন, সিনহা পি’স্তল তাক করার পরেই পু’লিশ গু’লি করে।

 

পারিপার্শ্বিক দিক বিবেচনা করলে দেখা যাচ্ছে, এটি পরিকল্পিত হ’ত্যাকাণ্ড হতে পারে। কেননা, ঘ’টনার পর সিনহার ব্যবহৃত ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন পাওয়া যাচ্ছে না। যা নীলিমা রিসোর্ট থেকে পু’লিশ জ’ব্দ করে। এসব থেকে ঘ’টনার প্রকৃত কারণ জানা যেতে পারে।

 

সেখানে কী ধরনের ডকুমেন্ট ছিল, তা হয়তো স’ন্দেহভাজন হ’ত‌্যাকারীরা জানতেন। ঘ’টনার পর টেকনাফ থা’নার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ কক্সবাজারের পু’লিশ সুপারকে ফোন করে বলেছিলেন, তিনি সিনহাকে গু’লি করার নি’র্দেশ দিয়েছিলেন।

 

কিন্তু গু’লি করার আগে লিয়াকত ওসি না অন্য কারও কাছ থেকে অ’নুমতি নিয়েছিলেন, সে বিষয়ে এখন ত’দন্ত করা হচ্ছে। এদিকে, ঘ’টনার পর ১৫ দিন পার হলেও এখনো প্রধান স’ন্দেহভাজন সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, ফাঁড়ি ইনচার্জ লিয়াকত ও এসআই দুলাল মিত্রকে জি’জ্ঞাসাবাদ করা হয়নি।

 

মূলত যে সাতজন রি’মান্ডে আছে তাদের কাছ থেকে তথ্য নেওয়ার পরেই এ তিনজনকে রি’মান্ডে আনা হবে। ইতোমধ্যে তাদের দেওয়া তথ্যে সংশ্লিষ্টরা ঘ’টনার বিষয়ে অনেক কিছু জানতে পেরেছেন।

 

গো’য়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, সিনহার ধারণ করা তথ‌্যচিত্রে পুরো টেকনাফের মা’দক ব‌্যবসার চিত্র উঠে আসে। তথ‌্যচিত্রের জন‌্য ওসি প্রদীপের বক্তব্য নিতে হয় সিনহাকে। নিজের গোমড় ফাঁ’স হয়ে যেতে পারে, এই ভ’য়ে সিনহাকে হ’ত্যা করা হতে পারে।

প্রসঙ্গত, ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর তল্লাশি চৌকিতে পু’লিশের গু’লিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহা’ম্মদ রাশেদ খান। এ ঘ’টনায় নি’হতের বোন বাদী হয়ে আদালতে হ’ত্যা মা’মলা করেছেন। এতে প্রদীপসহ ৯ জনকে আ’সামি করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *