Categories
জাতীয়

বিদ্যুৎ বিলও দিতেন না সাহেদ

রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদের বিরুদ্ধে শেষ নেই অনিয়মের অভিযোগের। হাসপাতালের বিদ্যুৎ বিলও দিতেন না তিনি। গত ১২ মাসে বকেয়ার পরিমাণ প্রায় সোয়া ৯ লাখ টাকা হলেও এক টাকাও বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করেনি রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা শাখা। তদবির-প্রভাব খাটিয়ে এই বিল বকেয়া রাখেন সাহেদ।

 

বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানির কর্মীদের অভিযোগ, বকেয়া না পেয়ে লাইন কাটতে গেলে অ’স্ত্র দেখিয়ে হু’মকি দিতেন সাহেদ।জানা যায়, রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা শাখায় মাসে ব্যবহার করা বিদ্যুতের গড় বিল আসে ৭০ হাজার টাকা। গেল ছয় বছরে কখনোই নিয়মিত এই বিল আদায় করতে পারেনি বিদ্যুৎ বিতরণকারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা ইলেক্ট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি ডেসকো।

 

২০১৭ থেকে ২০১৯- এই তিন বছরে বিল আদায়ে ৮ বার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। কিন্তু, প্রভাবশালীদের সহায়তায় পুনরায় সংযোগ নিতেন হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ।ডেসকোর উত্তরা (পশ্চিম) বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জিলহাজ উদ্দিন জানান, বারবার তাগাদা ও সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে গত বছরের মাঝামাঝি পর্যন্ত উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতাল থেকে কিছু বিল আদায় করা গেছে। তবে গেল ১২ মাসের বিল আদায় করতে পারেননি ডেসকোর কর্মকর্তারা।

 

এখন বকেয়ার পরিমাণ ৯ লাখ ২৩ হাজার ৫৬১ টাকা। ডেসকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাউসার আমীর আলী বলেন, রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার হওয়ায় এখন বিল আদায়ে আশাবাদী আমরা। সহযোগিতার জন্য বৃহস্পতিবার র‍্যাবকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

বর্তমানে র‍্যাবের হেফাজতে রিজেন্ট হাসপাতালটি সিলগালা থাকলেও থেমে নেই বিদ্যুতের ব্যবহার। ডেসকোর কর্মকর্তারা বলছেন, র‍্যাবের সাথে আলোচনা করে শিগগিরই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করবেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *