Categories
জাতীয়

ইতিহাসের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে স্বর্ণ-রুপার দাম

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে অর্থনৈতিক সংকটের প্রেক্ষাপটে সারাবিশ্বেই বেড়েছে স্বর্ণের দাম। বুধবার তা রেকর্ড করেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।বিশ্ববাজারে বুধবার (২২ জুলাই) প্রতি ১ আউন্স (২.৪৩০৫ ভরি) স্বর্ণের দাম ১.৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়ায় ১,৮৬৫.৮১ ডলার, যা প্রায় গত নয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

 

করোনাভাইরাস মহামারীতে ইউএস ডলারের মূল্য পতনে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দামের এই উল্লম্ফন।ভারতের পুঁজিবাজারে বুধবার দিনের শুরুতেই ২২ ক্যারেট মানের প্রতি ১০ গ্রাম (১ ভরির সামান্য কম) স্বর্ণের দাম পৌঁছায় ৪৯ হাজার ৯৯৬ রুপিতে (৬৭০.৩২ ডলার), বাংলাদেশি টাকায় যা প্রায় ৫৬ হাজার ৫০০ টাকা।

 

ভারতে স্বর্ণের দামের বিষয়টি অবশ্য স্থানীয় খুচরা বাজারে চাহিদার ওপর অনেকটা নির্ভর করে। কেননা মূল্যবান এই ধাতুটি সর্বোচ্চ ব্যবহারের দিক থেকে ভারত বিশ্বে দ্বিতীয়। স্বর্ণের এই দামের বৃদ্ধি ২০১৯ সালের দাম থেকে ২৮ শতাংশ বেশি।

এদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে রুপার দামও ২০১৩ সালের পর সর্বোচ্চ পর্যায়ে ঠেকেছে। প্রতি আউন্স রুপার দাম উঠেছে ২২.৮৩৬৬ ডলার। ভারতেও রুপার দাম বেড়েছে। দেশটির পুঁজি বাজারে বুধবার একপর্যায়ে প্রতি কেজির রুপার দাম ওঠে ৬০ হাজার ৭৮২ রুপি, যা সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

 

অর্থনৈতিক মন্দা বা রাজনৈতিক অস্থিরতায় ডলারের মান যখন দুর্বল হয়ে ওঠে, তখন স্বর্ণসহ নির্ধারিত বিভিন্ন ধাতুতে বিনিয়োগে নিরাপদ বোধ করেন বিনিয়োগকারীরা। ফলে এসব ধাতুর দাম বাড়ে। আর ডলার শক্ত অবস্থানে থাকলে স্বর্ণসহ মূল্যবান ধাতুগুলোর দাম কমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *