Categories
জাতীয়

শাহেদ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা জানিয়ে দিলো ডাক্তার

আদালতে বিচারকের সামনে রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক মো. শাহেদ নিজেকে করোনাভাইরাসের রোগী বলে দাবি করেছেন। বুধবার (১৫ জুলাই) গ্রেফতারের পর বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করা হলে তিনি এমন দাবি করেন।

 

কোমরে দড়ি বেঁধে এবং হাত কড়া পরিয়ে মো. শাহেদ ওরফে শাহেদ করিমকে গোয়েন্দা পুলিশ ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে হাজির করে বৃহস্পতিবার সকালে। এসময় তার মাথায় হেলমেট এবং গায়ে বুলেট প্রুফ জ্যাকেট ছিল। চিকিৎসায় প্রতারণার মামলায় গোয়েন্দা পুলিশ ১০ দিনের রি’মান্ড আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

 

এর শুনানির সময়ই মো. শাহেদ আদালতে নিজেকে করোনাভাইরাস আ’ক্রা”ন্ত বলে দাবি করেন।র‍্যাব তাকে গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তরের পর বুধবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়।এ বিষয়ে ডিবি পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন জানান, স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী সাহেদ পুরোপুরি সুস্থ আছেন। তবে তার করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হয়নি।

অন্যদিকে শাহেদের আইনজীবী নাজমুল হোসাইন বলেছেন, শুনানির আগে তিনি আদালতেই সাহেদের সঙ্গে কথা বলেছেন। সে সময় সাহেদ তাকে এক মাস আগে করোনাভাইরাসে আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন।শাহেদ এখন চিকিৎসার আবেদন করেননি বলেও জানিয়ে তিনি বলেন, সে (শাহেদ) আমাকে বলেছে যে, তার করোনাভাইরাস পজেটিভ হয়েছিল। পরে সে সুস্থ হয়েছে। কিন্তু ‍দূর্বল।

 

আদালতে এমন মন্তব্যের বিষয়ে পিপি আব্দুল্লাহ আবু বলেছেন, অভিযুক্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার দাবি করলেও তার পক্ষ থেকে পরীক্ষা বা চিকিৎসা করানোর লিখিত কোনো আবেদন ছিল না। সে কারণে বিষয়টি আমলে না নিয়ে আদালত রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

 

আসামী পক্ষ থেকে চিকিৎসা বা হাসপাতালে নেয়ার জন্য আবেদন করতে হয়। এটা নিয়ম। কিন্তু শাহেদের পক্ষে এমন কোন আবেদন করা হয়নি। সেজন্য শাহেদের বক্তব্য আমলে আসেনি। অন্যদিকে পরিস্থিতির বিবেচনায় তার করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছেন আব্দুল বাতেন। সূত্র: বিবিসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *