Categories
জাতীয়

মোবাইল ট্র্যাকিংয়ে সাহেদের অবস্থান শনাক্ত, ভারতে পালিয়ে যাবার সন্দেহে পুলিশি তৎপরতা

করোনা নমুনা পরীক্ষা কেলেঙ্কারী মামলার প্রধান আসামি রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিম মৌলভীবাজারের চাতলাপুর সীমান্ত দিয়ে ভারতে পালিয়ে যেতে পারে সন্দেহে পুলিশ তৎপরতা চালিয়েছে।

 

কমলগঞ্জের শমশেরনগরে সোমবার বিকাল ৫টা থেকে আকস্মিক পুলিশি তৎপরতা শুরু হয়েছে। শমশেরনগর চৌমুহনা থেকে ভারতের ত্রিপুরাগামী সড়কের মুখে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা যানবাহন তল্লাশি শুরু করেছেন।

 

শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ি সূত্রে জানা যায়, মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ থেকে জানানো হয়েছে, ঢাকার রিজেন্ট হাসপাতালের করোনা কেলেঙ্কারী পলাতক প্রধান আসামি মো. সাহেদ এ পথে কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর সীমান্তপথে ভারতের ত্রিপুরা যেতে পারেন। তাই সতর্কতা হিসেবে পুলিশ সদস্যদের যানবাহন তল্লাশি করতে হবে।

পুলিশের একটি সূত্র বলছে, পলাতক সাহেদের মোবাইল ট্র্যাক করে দেখা গেছে, সাহেদ মৌলভীবাজার জেলায় অবস্থান করছেন। তাই সোমবার বিকেল থেকে শমশেরনগর ও শ্রীমঙ্গল উপজেলায় পুলিশি তৎপরতা বৃদ্ধি করা হয়।

 

শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুপ কুমার চৌধুরী বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা গেছে মো. সাহেদ চাতলাপুর সীমান্ত দিয়ে ভারতের ত্রিপুরা প্রবেশ করতে পারে। তাই তাকে ধরার জন্য সতর্কতামূলকভাবে পুলিশ শমশেরনগরে তদারকি চালাচ্ছে। সোমবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত পুলিশ সদস্যদের শমশেরনগর চৌমুহনায় দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *