আইফোন পেয়ে ফিরিয়ে দিলেন রিকশাচালক আমিনুল, পাচ্ছেন পুরস্কার

আইফোন পেয়ে ফিরিয়ে দিলেন রিকশাচালক আমিনুল, পাচ্ছেন পুরস্কার

আমিনুল ইসলাম রাজধানীর গুলশান এলাকায় রিকশা চালান। ৮ বছর যাবত গুলশান এলাকায় রিকশা চা’লিয়ে জীবি’কা নির্বাহ করেন। গত ৫ আগস্ট মার্কিন এক নাগরিকের আইফোন (আইফোন ১৩ প্রো ম্যা’ক্স) পেয়েও পুলিশের মাধ্যমে মা’লিককে ফি’রিয়ে দেন তিনি। ফো’নটি পেয়ে এ ঘটনা গণমাধ্যমে প্র’কাশ হওয়ার পর আলোচনায় আসেন আমিনুল।

আমিনুল বলেন, ৮ বছর যাবত গুলশান এলাকায় রিকশা চা’লাই। ৫ আগস্ট গুলশান-২ নম্বর এলাকায় যাত্রী না’মিয়ে দেওয়ার পর আমি গদির ফাঁ’কে মোবাইলটি দেখতে পাই। মোবাইলটি ব’ন্ধ অবস্থায় ছিল। চার্জ না থাকায় চালু করা যাচ্ছিল না। ফলে মোবাইলের মালিক কে, তা বুঝতে পারছিলাম না।

আমিনুল জানান, তিনি মোবাইলফোনটি চালু করার পর এক নারীর ফোন আসে। ওই নারী মোবাইলের মালিকানা দা’বি করেন। তখন ‘তিনি ওই নারীকে মোবাইল নিয়ে যেতে বলেন। পরে পুলিশের মাধ্যমে মালিকের কাছে মোবাইলটি ফিরিয়ে দেন। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক সীমা আহম্মেদ না’মের ওই নারীর জানান, মোবাইলটি তার ছেলে স্যামি আহম্মেদের। তারা যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন। মাঝে-মাঝে তারা বাংলাদেশে বেড়াতে আসেন।

সেদিন তিনি ছেলেকে নিয়ে রিকশায় করে রেস্তো’রাঁয় গিয়েছিলেন। পথে মোবাইলটি হা’রিয়ে ফেলেন। মোবাইলে চার্জ ছিল না। তাই ক’লও করা যাচ্ছিল না। পরে থানায় সাধারণ ডা’য়েরি (জিডি) করেন। একপর্যায়ে সিম চালু পান। ফোন করলে এক রিকশাচালক ধরেন। তিনি মোবাইলটি পাওয়ার কথা জা’নান। মোবাইলটি নিয়ে যেতে বলেন। তারা পুলিশকে এ তথ্য জানান। পরে আমিনুল পুলিশের কাছে মোবাইলটি পৌঁছে দেন।

গুলশান থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল কাদির গণমাধ্যমকে বলেন, মার্কিন নাগরিক সীমা আহম্মেদ তার ছেলেকে নি’য়ে রিকশায় চড়ে একটি রে’স্টুরেন্টে গিয়েছিলেন। সে সময় মোবাইলটি পড়ে যায়। পরে তিনি গুলশান থানায় জিডি করেন। মোবাইলটিতে রোবট তৈরির একটি প্রক’ল্পের অনে’ক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য-উপাত্ত ছিল। আমিনুল মোবাইলটি পেয়ে সততার স’ঙ্গে ফেরত দিয়েছেন। এসআই আরও বলেন, আমি প্রায় সাত বছরে সাড়ে চার হাজার মোবাইল উ’দ্ধার করেছি। কিন্তু কখনোই এমন সততার দৃ’ষ্টান্ত দেখিনি। আমাদের সবার আমিনুলের কাছ থেকে শেখা উচিত।

এদিকে মার্কিন নাগরিকের আইফোন পেয়ে তা ফিরিয়ে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করায় রিকশাচালক আমিনুল ইসলামকে পুরস্কৃত করবেন ঢাকা উত্ত’র সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মেয়রের একান্ত সচিব ফরিদ উদ্দিন। তিনি জানান, একজন রিক’শাচালক আমিনুল যে সততা দেখিয়েছেন, তা একটি দৃষ্টান্ত। আমিনুলের সততাকে সম্মান জানাতে ও এ ধরনের কাজে অন্যদের উৎসাহিত করতে তাকে পুরস্কৃত করার সি’দ্ধান্ত নিয়েছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। শিগগিরই তার হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন মেয়র।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2022 Jonotaralo
Design BY NewsTheme