সাবেক স্বামীর ফোন, মামুনের বাজে আচরণের শিকার সেই শিক্ষিকা

সাবেক স্বামীর ফোন, মামুনের বাজে আচরণের শিকার সেই শিক্ষিকা

আগস্ট মা’সের ১ তারিখ সাংবা’দিকদের কাছে মামুন বলেছিলেন, ‘মন্তব্য কখনো গন্তব্য ঠেকাতে পারে না।’ এই বক্তব্যের মাত্র দুই সপ্তাহের মাথায় কলেজশিক্ষক খায়রুন নাহারের জীবন প্র’দীপ নি’ভে গেল। আর এ নিয়েই মামুনকে নানা বিষয়ে প্রশ্ন করছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। তবে অনেক উত্তর নিয়ে সন্দেহ রয়েছে পুলিশের। প্রথম দফার জিজ্ঞাসাবাদে কিছু প্রশ্নের উত্তর পেয়েছে পুলিশ। বিকেলে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানান সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহম্মদ মহসীন।

এলাকাবাসী জানায়, নিজের আয় না থাকায় মামুন তার স্ত্রীর আয়ের ওপর নি’র্ভ’র’শীল ছিলেন। মামুনের লেখাপড়ার যাতে ব্যাঘাত না ঘটে, সে জন্য নাটোর শহরে বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতেন খায়রুন। তিনি ৩৫ কিলোমিটার দূরে কলেজে প্রতিদিন যাতায়াত করতেন এই ভাড়াবাসা থেকেই। এছাড়া মামুনকে একটি মোটরসাইকেল কিনে দিয়েছিলেন খায়রুন।

এলাকাবাসী আরও জানান, সাবেক স্বামী খা’য়রুনকে প্রায় প্রতি রাতেই কল দিতেন। এনিয়ে মা’মুনের স’ঙ্গে দ্ব”ন্দ্ব চ’লছিল তাদের। ফোনের বিষয় নিয়ে মামুন খায়রুনের সঙ্গে বাজে আ”চ’রণ করতেন বলে দাবি এলাকাবাসীর।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহম্মদ মহসীন জানান, নানা দিক নিয়ে খায়রুনের দ্বিতীয় স্বা’মী মা’মুনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। রাত ২টায় কেন তিনি বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন, সে বিষয়টি নিয়েও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন উত্তর দিচ্ছেন মামুন।

এদিকে মোটরসাইকেলটি কি’স্তি’তে কিনে দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেন মামুন। এছাড়া রাতে খায়রুনের কাছে সাবেক স্বামীর ফোন আসত বলে মামুন স্বীকার করলেও এ নিয়ে দ্ব”ন্দ্বে”র বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহম্মদ মহসীন আরও বলেন, প্রতিবার জিজ্ঞাসাবাদে মামুন দাবি করেছে, খায়রুন নাহার আ”ত্ম-হ’-ত্যা করেছে। প্রকৃত ঘটনা জানতে মামুনকে আবারও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2022 Jonotaralo
Design BY NewsTheme